News

নিরাপত্তা ও সামর্থ আছে বলেই দুর্গামণ্ডপের সংখ্যা বাড়ছে

ড. হাছান মাহমুদ

দুঃখজনকভাবে আমরা ধর্ম পালন করতে গিয়ে ধর্মের মূল বাণী থেকে দূরে সরে যাই। এ কারণেই পৃথিবীতে এত হানাহানি বলেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, দেশে নিরাপত্তা ও মানুষের সামর্থ আছে বলেই দিন‌ দিন দুর্গামণ্ডপের সংখ্যা বাড়ছে। শনিবার (১৪ অক্টোবর) রাজধানীর বনানী পূজা মণ্ডপে মহালয়ার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশে সব উৎসবে হিন্দু, মুসলিম, খ্রিস্টান ও বৌদ্ধ সবাই যোগ দেন। মহালয়ার মাধ্যমে দুর্গার আগমনী‌ বার্তা ধ্বনিত হচ্ছে তা সফল হবে।

নির্বাচনের আগমুহূর্তে সাম্প্রদায়িক শক্তি বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করে বলেও অভিযোগ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন এলে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি ফনা তোলার চেষ্টা করে। কিন্তু আপামর বাঙালি অসাম্প্রদায়িক, তাই বারবার তারা পরাজিত হয়‌।

এদিকে শ্রীশ্রী চণ্ডীপাঠের মধ্যদিয়ে দেবী দুর্গার আবাহনই মহালয়া হিসেবে পরিচিত। মণ্ডপে মণ্ডপে ভোরে ‘চণ্ডী’ পাঠের মাধ্যমে দেবী দুর্গার সৃষ্টির বর্ণনা দিয়ে শুরু হয় মাতৃবন্দনা।

মহালয়া শুরুর এক সপ্তাহের মধ্যেই শুরু হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এ মুহূর্তে মণ্ডপগুলোতে চলছে দুর্গা প্রতিমা তৈরির শেষ সময়ের ব্যস্ততা। আগামী ২০ অক্টোবর মহাষষ্ঠীর মধ্যদিয়ে শুরু হবে দুর্গাপূজা। আর ২৪ অক্টোবর বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে শারদীয় দুর্গোৎসব।

পূজা উদযাপন কমিটি জানিয়েছে, এবার সারা দেশে ৩২ হাজার ৪০৭টি মণ্ডপে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি চলছে। এ হিসেবে গত বছরের চেয়ে এ বছর ২৪০টি বেশি পূজা মণ্ডপ হচ্ছে সারা দেশে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখে মণ্ডপে নিরাপত্তা দেয়ার আহ্বান জানিয়েছে পূজা উদযাপন কমিটি।

বাংলাদেশ জার্নাল/আইজে

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button