News

কৃষকরা পেলেন লটারি, অ্যাকাউন্টে আসবে ১০,০০০ টাকা, জানুন কিভাবে

মোদি সরকার প্রথম থেকেই জনগণের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতি করার জন্য অনেকগুলি সরকারি প্রকল্প চালাচ্ছে। সমস্ত প্রকল্পের মধ্যে সরকারের সবচেয়ে উচ্চাভিলাষী প্রকল্পটি হল প্রধানমন্ত্রী কিষাণ যোজনা । এই সরকারি প্রকল্পটি ২০১৮ সালে শুরু হয়েছিল। এই প্রকল্পের অধীনে, প্রতি চার মাস অন্তর, ২০০০ টাকা করে সরাসরি নিবন্ধিত কৃষকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর করা হয়।

এমন পরিস্থিতিতে খবর আসছে যে, কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের দেওয়া আর্থিক সহায়তার পরিমাণ ৬,০০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১০,০০০ টাকা করতে পারে। এর অর্থ, প্রতি চার মাস অন্তর ২ হাজার টাকার পরিবর্তে ৩ হাজার টাকার বেশি কৃষকদের দেওয়া হবে। মোদি সরকার যদিও এ বিষয়ে কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়নি।

ICRIER-এর একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে যে, পিএম কিষাণ প্রকল্পের অধীনে কৃষকদের বার্ষিক ৬,০০০ টাকা করে দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু ক্রমবর্ধমান মুদ্রাস্ফীতি দেখে মোদি সরকারের উচিত আর্থিক সহায়তা বাড়িয়ে অন্তত ১০,০০০ টাকা করা। গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, দেশে অনেক ক্ষুদ্র কৃষক রয়েছে যাদের ২ হেক্টরের কম জমি রয়েছে। ব্যবসায়িক নীতির কারণে অনেক কৃষক ক্ষতির সম্মুখীন হন। এমতাবস্থায় কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের যে সাহায্য দিয়েছে তা খুবই কম।

কেন্দ্রীয় সরকারের এই প্রকল্পের সুবিধা নিচ্ছিলেন বিপুল সংখ্যক অযোগ্য মানুষ। কিন্তু সরকার ওই ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে তালিকা থেকে বাদ দিয়েছে। এর ফলে, সরকারের প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা সাশ্রয় করেছে। মোদি সরকার এখনো অবধি এই প্রকল্পের ১৪টি কিস্তির টাকা কৃষকদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর করেছে। জানা যাচ্ছে, দীপাবলির আগেই ১৫তম কিস্তি দিয়ে দেওয়া হবে সরকারের তরফে। তবে এখনো আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা আসেনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button