Tech

আইফোন পাসকোড কাজ করছে না? জেনে নিন কী করবেন

ডিজিটালি উপস্থাপন যোগ্য সম্পদ এবং ডেটা প্রায়শই স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের পকেটের মধ্যেই থাকে। এ কারণেই অ্যাপল আইফোন ব্যবহারকারীদের সাইবার হামলার থেকে সব সময় শীর্ষস্থানীয় সুরক্ষা দেওয়ার চেষ্টা করে আসছে। ব্যবহারকারীদের সংবেদনশীল তথ্য সুরক্ষিত রাখা তাদের প্রধান অগ্রাধিকার হিসেবে সব সময় বিবেচিত হয়ে এসেছে। এজন্য তারা অননুমোদিত প্রবেশ রোধ করার জন্য বেশ কিছু সতর্কতা অবলম্বন করে থাকে। এগুলোর মধ্যে টাচ আইডি, ফেস আইডি এবং পুরানো সময়ের পাস কোড অনেক ভালো অপশন হিসেবে রয়েছে।

তবে অনেক আইফোন ব্যবহারকারীর ফোনেই অনেক সময় পাসকোড ঠিক ভাবে কাজ করে না। আইফোনে যদি যদি সঠিকভাবে পাসকোড ইনপুট হিসেবে দেয়া না হয়ে থাকে তাহলে “আইফোন পাসকোড নট ওয়ার্কিং” এই সমস্যাটি দেখা দিয়ে থাকে। আপনি যতবার এতে চেষ্টা করতে থাকবেন তত বেশি সমস্যাটা বিপজ্জনক হতে থাকবে। তবে ভয় পাওয়ার কিছু নেই কারণ সমস্যাটির অনেক গুলো সমাধান রয়েছে। আমাদের আজকের এই আর্টিকেলে আমরা আইফোনের পাসকোড যদি ঠিক মতো কাজ না করে সেক্ষেত্রে আপনার কি করনীয় সেই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

আইফোন পাসকোড ঠিক মতো কাজ না করার পেছনের কারণ কি? 

আইফোন পাসকোড নট ফাংশনিং বা পাসকোড এরর মেসেজটি কেউ তার ফোনের স্ক্রিনে দেখতে চায় না। সমস্যাটি সমাধান করার আগে আমাদের জানা উচিত সমস্যাটি কেন হয়ে থাকে। আমাদের পোস্টে বিস্তারিত পেয়ে যাবেন সে সম্পর্কে।

আইওএস আপডেট এর পরে পাসকোড কাজ না করা 

অ্যাপল সব সময় তাদের ব্যবহারকারীদের জন্য সর্বোচ্চ সেবার মান নিশ্চিত করে থাকে। এজন্য তারা কিছু সময় পরপরই নতুন নতুন আপডেট নিয়ে আসে। বেশিরভাগ আপডেটেই বিভিন্ন ধরনের বাগ এবং ছোট খাটো সিস্টেম সমস্যার সমাধান করা হয়। যদি আপনি আপনার আইফোন বেশ সম্প্রতি আপডেট করে থাকেন তাহলে আপনার ডিভাইসের পাসকোড ঠিক মতো কাজ নাও করতে পারে। তবে এটা সচরাচর ঘটতে দেখা যায়না।

ভুল পাসকোড দেওয়া 

আপনার আইওএস ডিভাইসে থাকা কন্টেন্ট গুলোর এক্সেস পাওয়ার জন্য পাসকোড খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যদি আপনার পাসকোড বেশ কয়েকবার ভুল প্রদান করেন তাহলে আপনার স্মার্টফোন আপনাকে নোটিফিকেশন পাঠাবে যে আপনি বারবার ভুল চেষ্টা করছেন। আইফোনে এমন একটি সেটিংস রয়েছে যেখানে আপনি ১০ বার ভুল পাসকোড প্রদান করলে সকল ডাটা অটোমেটিক্যালি ডিলিট হয়ে যাবে। তবে সেটা এমনিতে বন্ধ থাকে।

পাসকোড ভুলে যাওয়া 

আপনি হয়তো আপনার আইফোনের পাসকোড পরিবর্তন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কিন্তু এরপরে আপনি এমনও হতে পারে যে আপনার পাসওয়ার্ড ভুলে গিয়েছেন। এ সময় আপনি অনেক বেশি কনফিডেন্সের সাথে আপনার ভুল পাসকোড দিচ্ছেন। তখন হয়তো আপনি নাও বুঝতে পারেন আপনার আইফোন কেন চালু হচ্ছে না। 

অনেকদিন যাবত আইফোন আপডেট না করা 

অনেক সময় আপনি যখন আপনার ডিভাইসে আইওএস ভার্সন আপডেট করবেন তখন আপনার অপারেটিং সিস্টেম এটি সঠিকভাবে ইন্সটল নাও করতে পারে। আইওএস আপডেটের এই ত্রুটি আপনার অপারেটিং সিস্টেমের জন্য অনেক বেশি সমস্যা বয়ে নিয়ে আসতে পারে। এ সকল ক্ষেত্রেও আপনি পাসকোড দেওয়ার ক্ষেত্রে জটিলতার সম্মুখীন হতে পারেন। 

আইফোন আনলক করার উপায় 

আপনি যদি আপনার আইফোনের পাসকোড ভুল প্রদান করেন তাহলে আপনার ডিভাইসে থাকা যেকোনো ধরনের তথ্য আপনি দেখতে পারবেন না। আপনি যদি এরকম ভুল পাসওয়ার্ড দেওয়া চালিয়ে যেতে থাকেন তাহলে একটা সময় আপনার ডিভাইস অটোমেটিকালি লক হয়ে যাবে। এ থেকে বাঁচার জন্য নিম্নলিখিত উপায়গুলি অনুসরণ করতে পারেন। 

আইফোন পাসকোড কাজ না করলে কম্পিউটারের মাধ্যমে ঠিক করা 

আপনার আইফোনে পাসওয়ার্ড ঠিকমত কাজ না করলে সর্ব প্রথমে আপনাকে আইটিউন্সের মাধ্যমে (অথবা ফাইন্ডার এর মাধ্যমে) এই সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করতে হবে। ব্যবহারকারীদের জন্য সকল ধরনের সেটিংস মুছে ফেলার জন্য আইটিউন্স একটি আদর্শ অপশন। এটি করার জন্য আপনাকে যে সকল কাজ করতে হবে সেগুলো হলো- (মনে রাখবেন, আপনার আইফোনের ভার্সন অনুযায়ী কাজটি কিছুটা আলাদা হতে পারে।)

  • আপনার যেই কম্পিউটার দিয়ে আপনি একে আগে সিনক্রোনাইজ করেছেন সেটির সাথে সংযুক্ত করুন। মনে রাখবেন নতুন কোনো কম্পিউটার যেখানে আপনার আইফোনের কোনো ব্যাকআপ রাখা নেই সেটাতে সংযুক্ত করলে আপনি এর পুরোনো ডাটা ফিরে পাবেন না।
  • যদি এটি আপনাকে আপনার আইফোনের ডিসপ্লে থেকে ট্রাস্ট করার অপশনে ক্লিক করতে বলে তাহলে ভিন্ন কোনো ল্যাপটপ ব্যবহার করুন। কিংবা আপনি চাইলে ফোনকে রিপেয়ার মোডেও রাখতে পারেন।
  • ধৈর্য সহকারে অপেক্ষা করুন যতক্ষণ না আইটিউন্স আপনার আইফোনের একটি ব্যাকআপ এবং সিনক্রোনাইজ না করে থাকে। সিনকিং এবং ব্যাকআপ করার প্রসেস শেষ হবার পরে রিস্টোর আইফোন বাটন নির্বাচন করুন। 
  • যখন আপনার সামনে সেটআপ স্ক্রিন আসবে তখন রিস্টোর ফ্রম আইটিউন্স ব্যাকআপ অপশনটি নির্বাচন করুন। যখনই আপনি আপনার ডিভাইসের সেটআপ করার প্রথম ধাপ সম্পন্ন করবেন তখন আপনি চাইলে আপনার পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে নিতে পারবেন। এভাবে আপনি আইটিউন্স ব্যবহার করে আপনার পাসকোড  চেঞ্জ করে নিতে পারেন। 

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

iPhone 15

👉 পাসকোড ছাড়াই আইফোন আনলক করার উপায়

আইফোন পাসকোড নট ওয়ার্কিং বাইপাস করা কি সম্ভব?

থার্ড পার্টি কিছু সফটওয়্যার এরকম সুবিধা দেওয়ার কথা বললেও আসলে আপনার আইফোন যদি আইক্লাউড লক করা থাকে তাহলে সেটা আপনি অ্যাপল আইডির পাসওয়ার্ড ছাড়া আনলক করতে পারবেন না। অপরদিকে যদি আইক্লাউড লক করা না থাকে তাহলে আপনি কম্পিউটার থেকে রিকভারি মুডে গিয়ে আইফোন রিসেট করতে পারেন। তাই আপনার আইফোন পাসকোড রিসেট করতে অফিসিয়াল পদ্ধতিই অবলম্বন করুন।

শেষ কথা

আপনি যখন খুব দ্রুত আপনার আইফোনটি ব্যবহার করতে চাচ্ছেন ঠিক তখনই যদি আইফোন পাসকোড নট ফাংশনিং মেসেজটি দেখতে পান তাহলে সেটি আপনার জন্য অনেক বেশি বিরক্তিকর হয়ে উঠবে। তাই আইফোন পাসকোড  ব্যবহার করার ক্ষেত্রে সেটিকে সবসময় মনে রাখার চেষ্টা করুন এবং যত দূর সম্ভব ভুল পাসকোড বারবার দেওয়ার চেষ্টা থেকে বিরত থাকুন। আইফোনের পাসকোড  নট ওয়ার্কিং সম্পর্কে আমাদের আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাদের কাছে কেমন লেগেছে তা আমাদের কমেন্ট এর মাধ্যমে জানিয়ে দিন।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button