TechTricks

জেনে নিন Depression থেকে কিভাবে বের হতে হয়! 100% working

আসসালামু আলাইকুম।

আশা করি আল্লাহর রহমতে আপনারা সকলেই অনেক ভাল আছেন।

আমার আজকের আলোচনার বিষয় হচ্ছে ডিপ্রেশন থেকে কিভাবে বের হবেন। বেশি কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

 

 

ডিপ্রেশন শব্দটির সাথে আমরা সকলেই পরিচিত। কেননা মানুষ নানা কারণে ডিপ্রেশনে পড়ে গিয়ে থাকে। এক্ষেত্রে মানুষ একা থাকতে বেশি পছন্দ করে। বিশেষ করে তাদের মনের ভিতর এমন কিছু কাজ করে যার ফলে তারা ভাবে তারা একা তাদের সবকিছু শেষ হয়ে গেছে। তাদেরকে দিয়ে কিছু হবে না ইত্যাদি ইত্যাদি।

ডিপ্রেশন থেকে চাইলে খুব সহজে বের হয়ে আসা যায়। তবে ডিপ্রেশন মানুষের কাছে এমন আকার ধারণ করেছে বর্তমানে যে এটি একটি বড় ধরনের রোগের সমপর্যায়ে চলে গিয়েছে।

ডিপ্রেশনে পড়ার অনেক কারণ আছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে তার পছন্দের কিছু হারানো সহ তার পরিবার এবং নানাবিদ সমস্যা।

বর্তমানে বেশিরভাগ ডিপ্রেশনে যাওয়া মানুষের পিছনে দায়ী থাকে ভালোবাসা। এটি ছেলে বা মেয়ে উভয়ের ক্ষেত্রেই হয়ে থাকে।

মানুষ সাধারণত এইসব কারণেই বেশিরভাগ সময় ডিপ্রেশনে পড়ে থাকে।

চলুন এবার বলে দিই কিভাবে আপনি ডিপ্রেশন থেকে নিজেকে বের করবেন?

ডিপ্রেশনে পড়লে মানুষ সাধারনত নিজেকে একা করে নেয় অর্থাৎ মানুষ নিজেকে সকলের থেকে আলাদা করে একা একা চলতে পছন্দ করে তখন। ডিপ্রেশনে অনেকদিন ধরে থাকার সবথেকে বড় কারণ এটাই কেননা তারা কারো সাথে মিশে না কোন কাজ করতে চায় না নিজেকে কোথাও ব্যস্ত রাখতে চায় না তাই জন্য তারা মানসিকভাবে অনেক চাপের মধ্যে থাকে।

ডিপ্রেশন করলে অবশ্যই নিজেকে কোন কিছু মাঝে ব্যস্ত রাখতে হবে।

মানুষের জীবনে ভালো লাগা খারাপ লাগা দুটোই আছে। এমন না যে শুধুমাত্র আপনি ব্যর্থ হয়েছেন তাই জন্যই আপনার সবকিছু শেষ হয়ে গেছে তা নয়। ব্যর্থতা আপনাকে শেখায় কিভাবে স্ট্রং হতে হয়।

আমাদের সকলের মাঝে ভালো রাখা বা খারাপ লাগা কাজ করে। আপনি যদি কোনো কারণে ডিপ্রেশনে গিয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার পছন্দের কাজ গুলি করুন। নিজেকে বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত রাখুন। এছাড়াও মাইন্ড ভালো রাখার জন্য কোথাও ঘুরে আসতে পারেন।

বেশিরভাগ সময় ফ্যামিলির সাথে থাকার চেষ্টা করুন। কেননা কখনোই আপনার ফ্যামিলি আপনাকে ছেড়ে যাবে না। পৃথিবীর সব মানুষ আপনাকে ছেড়ে গেলেও আপনার পরিবার আপনাকে কখনোই ছাড়বেনা। আপনার জীবনের ভালো সময় খারাপ সময় দুটোতেই আপনার ফ্যামিলিকে পাবেন আপনার পাশে।

ডিপ্রেশনের সব থেকে বড় চিকিৎসা হচ্ছে আপনার নিজের মাইন্ড আপনার নিজের চিন্তা। এই সময় আপনি যা চিন্তা করবেন সেই অনুযায়ী আপনার মাইন্ড আপনাকে চালাবে। এজন্য আপনার মানসিক দিক শক্ত রাখতে হবে। তার পাশাপাশি আপনাকে এটা ভাবতে হবে আপনি ডিপ্রেশনে পড়বেন না এবং যে ব্যর্থতার কারণে আপনাকে ডিপ্রেশন ঘিরে রেখেছে তার থেকে শিক্ষা নিয়ে ভবিষ্যতে ভালো কিছু করবেন।

সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ কথা হচ্ছে আপনি যদি ডিপ্রেশনে থাকেন আপনার মাইন্ড আপনাকে কখনোই এমনটা ভাবতে দিবে না যে আপনি কিছু করতে পারবেন। তাই নিজেকে বা নিজের মাইন্ড কে এমনটা বোঝাতে হবে যে আপনি বাকি দশটা মানুষের মত না। আপনার মানুষের দিক অনেক শক্তিশালী সে বিষয়ে নিজের উপর বিশ্বাস রাখতে হবে। তাহলে অনেক সহজ হয়ে যাবে আপনার ডিপ্রেশন থেকে বের হওয়ার প্রসেস।

পোষ্টের মাধ্যমে বলাটা যত সহজ হচ্ছে করাটা ততটা সহজ হবে না। তবে নিজের উপর বিশ্বাস থাকলে আর নিজেকে কোন ভাবে বোঝাতে পারলে অবশ্যই ডিপ্রেশন থেকে অনেক তাড়াতাড়ি বের হওয়া যায়।

সব সময় মনে রাখবেন ডিপ্রেশন যেন আপনাকে কন্ট্রোল না করে। আপনি যেন ডিপ্রেশন করে কন্ট্রোল করতে পারেন আর এই বিশ্বাসটা রাখবেন সবসময় নিজের উপর। আপনি চাইলেই অনেক কিছু করতে পারবেন।

ডিপ্রেশন মূলত আপনার যে ক্ষতি করে তা হচ্ছে, আপনার আত্মবিশ্বাস কে ভেঙ্গে দেয় অনেক বাজে ভাবে। আর আপনার এই আত্মবিশ্বাস ভেঙ্গে যাওয়ার পরও কারণ হচ্ছে আপনি যাকে বিশ্বাস করেন সে আপনার বিশ্বাস ভেঙে দিয়েছে।

ঘরের এক কোণে বসে না থেকে মানুষের সাথে কথা বলা ভালো ব্যবহার করা বা তাদের সাথে ঘোরাঘুরি ইত্যাদিতে নিজেকে ব্যস্ত রাখুন। ফোনের মধ্যে জীবনটাকে বেঁধে রাখবেন না । আপনার দ্বারা অনেক কিছুই সম্ভব যদি কিনা আপনি ফোনের বাহিরেও কিছু করেন।

আপনার মাঝে যখনই আত্মবিশ্বাস টা তৈরি হবে তখনই বুঝতে পারবেন আপনি ডিপ্রেশন থেকে বের হয়ে আসতে পেরেছেন।

আর যারা অতিরিক্ত ডিপ্রেশনে ভুগতেছেন তাদের জন্য অন্য একটি পোস্ট আসবে ততক্ষণ পর্যন্ত সাথে থাকুন ধন্যবাদ।

ততক্ষণ পর্যন্ত নিজে ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন নিজের যত্ন নিবেন। সকলের জন্য শুভকামনা জানিয়ে আজকের আলোচনার বিষয় এখানেই শেষ করছি।

আল্লাহ হাফেজ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button