News

আইন কাউকে নির্বাচন বানচালের সুযোগ দেয়নি: ইসি

নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা, না করার এখতিয়ার সবার আছে। কিন্তু নির্বাচন বানচাল করা বা অন্যকে নির্বাচন করতে না দেয়ার অধিকার আইন কাউকে দেয়নি। ভোটের পরিবেশ সৃষ্টিতে যা যা দরকার সেদিকে আমরা নজর দিচ্ছি।

রোববার (২৬ নভেম্বর) চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে আয়োজিত সভা শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন নির্বাচন কমিশনার আনিছুর রহমান।

তিনি বলেন, কমিশনে ৪৪টা দল নিবন্ধিত আছে। নির্বাচন বানচাল করা বা অন্যকে নির্বাচন করতে না দেয়ার অধিকার কাউকে দেয়া হয়নি। এরকম কেউ করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। কারণ নির্বাচন না করার অধিকার তাদের একক কিংবা দলীয় সিদ্ধান্ত। তাই বলে কাউকে বাধা দেয়া যাবে না। ভোটের পরিবেশ সৃষ্টিতে যা যা দরকার সেদিকে আমরা নজর দিচ্ছি।

নির্বাচনে দায়িত্ব পালনে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের বিষয়ে তিনি বলেন, সুষ্ঠু অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে কোনো ছাড় দেয়া হবে না। কোনো ধরনের পক্ষপাতমূলক আচরণ ও শৈথিল্যতা প্রদর্শন করা যাবে না। দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতে হবে। যদি কারও পক্ষপাতমূলক আচরণে নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হয় তাহলে তিনিই দায়ী থাকবেন। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নির্বাচন কমিশনার আনিছুর রহমান বলেন, আমরা নিবন্ধিত ছোট-বড় সব দলকে ভোটে অংশগ্রহণের আহ্বান জানাচ্ছি। বিএনপিকেও আমরা বার বার আহ্বান জানিয়েছি। ভোটে অংশ নেয়া অথবা না নেয়ার স্বাধীনতা তাদের রয়েছে। তবে কোনো দল যদি নির্বাচনে অংশ না নিয়ে সহিংসতার চেষ্টা করে তবে কঠোরভাবে দমন করা হবে।

নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ভোটারদের কেন্দ্রে উপস্থিতি করানোর দায়িত্ব কমিশনের না। তবে কোনো ভোটার ভোট প্রয়োগে বাধাপ্রাপ্ত হলে কমিশন বিষয়টি দেখবে। তাদের নিরাপত্তার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

বিএনপি নির্বাচনে এলে তফসিল পুনর্বিবেচনা করা হবে কি-না এমন প্রশ্নে আনিছুর রহমান আরও বলেন, আমরা এখনও কারও কাছ থেকে কোনো আবেদন পাইনি। যদি কেউ নির্বাচনে আসে বা নির্বাচনের সময় নিয়ে যদি কারও কথা থাকে তবে সেক্ষেত্রে আমরা বিবেচনা করবো। সেই বিবেচনা করার মত যথেষ্ট সময় আমাদের আছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমপি

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button