Tech

শাওমি হাইপারওএস এর দারুণ কিছু ফিচার জেনে নিন

HyperOS নামে নতুন একটি অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে এসেছে শাওমি, যা এর বর্তমান মিইউআই এর পরিবর্তে ব্যবহৃত হবে। সকল শাওমি ডিভাইসকে একটি ইন্টিগ্রেটেড সিস্টেমের মধ্যে আনার লক্ষ্যে হাইপারওএস ডিজাইন করা হয়েছে।

লো-লেভেল রিফ্যাক্টরিং, ইন্টেলিজেন্ট কানেকটিভিটি, প্রোএকটিভ ইন্টেলিজেন্স, ও এন্ড-এন্ড-এন্ড সিকিউরিটি এর মত ফিচার নিয়ে আসবে এই নতুন অপারেটিং সিস্টেম। সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া শাওমি ১৪ সিরিজে হাইপারওএস প্রি-ইন্সটলড দেখা মিলবে। ধীরে ধীরে অন্য শাওমি ডিভাইসের পাশাপাশি রেডমি ডিভাইসগুলোতেও হাইপারওএস আসবে।

হাইপারওএস এর মূল লক্ষ্য হলো মিইউআই অপেক্ষা সিস্টেমের জন্য হালকা হওয়ার পাশাপাশি আরো ভালো পারফরম্যান্স প্রদান করা। ইতিমধ্যে এই লক্ষ্যে অনেকটা সফল হাইপারওএস, যেখানে মিইউআই ১৪ এর ফার্মওয়্যার সাইজ ১৩.০৯ জিবি ছিলো সেখানে হাইপারওএস এর ফার্মওয়্যার সাইজ অপেক্ষাকৃত অনেক কম, মাত্র ৮.৭৫ জিবি। এছাড়া হাইপারওএস এর সাথে ব্র‍্যান্ড নিউ ইউজার ইন্টারফেসও থাকছে।

শাওমির নতুন হাইপারওএস সম্পর্কে বিস্তারিত জানবেন আমাদের পোস্টে। হাইপারওএস কি, কিভাবে কাজ করবে, ফিচারসমূহ ও সাপোর্টেড ডিভাইস সম্পর্কেও জানবেন।

কেনো নতুন অপারেটিং সিস্টেম তৈরী করেছে শাওমি?

গত ১৩ বছর ধরে ২০০ এর অধিক প্রোডাক্ট ক্যাটাগরির মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী ১.১ বিলিয়নের অধিক ব্যবহারকারী অর্জন করেছে শাওমি। ইন্টারনেট অফ থিংস (IoT) এর যুগে এসেও একাধিক ক্যাটাগরির প্রোডাক্টের জন্য একাধিক অপারেটিং সিস্টেম পরিচালনা করতে গিয়ে অনেকটা হিমশিম খেতে হয় শাওমিকে। এই সমস্যার সমাধান করতে ২০১৭ সাল থেকে হাইপারওএস নিয়ে কাজ শুরু করে শাওমি।

শাওমির ভাষ্যমতে হাইপারওএস হতে যাচ্ছে একটি “হিউম্যান-সেন্ট্রিক” ওএস যা মিইউআই এর চেয়ে অধিক ইউজার-ফ্রেন্ডলি ও ফাংশনাল হবে। মডার্ন স্ট্রিমলাইনড ডিজাউন ল্যাংগুয়েজ এর এই অপারেটিং সিস্টেম শাওমি ডিভাইসগুলোর ইউজেবিলিটি বাড়িয়ে তুলবে।

ডিভাইস সুইচিং, ডাটা ও অ্যাপসের জন্য রিমোট অ্যাকসেস, স্পিচ রেকগনিশন, ইমেজ সার্চ বা আর্ট ক্রিয়েশনের মত এআই-ভিত্তিক ফিচারগুলোর ক্ষেত্রে অনেক সুবিধা প্রদান করতে যাচ্ছে নতুন এই হাইপারওএস।

হাইপারওএস কি?

শাওমির হাইপারওএস হলো একটি লাইটওয়েট ও এফিসিয়েন্ট অপারেটিং সিস্টেম যা এন্ড্রয়েড ওপেন সোর্স প্রজেক্ট (AOSP) এর উপর ভিত্তি করে তৈরী। এর মানে হলো গুগল এর এন্ড্রয়েড সার্ভিসসমূহের উপর নির্ভরশীল নয় এটি ও শাওমি প্রয়োজনমাফিক এটিকে ব্যবহার করতে পারবে। কম শক্তিশালী হার্ডওয়্যারেও যাতে হাইপারওএস চলতে পারে সে বিষয় মাথায় রেখে এটি তৈরী করা হয়েছে, যার মানে হলো বাজেট-ফ্রেন্ডলি শাওমি রেডমি ডিভাইসগুলোতেও এটি বেশ সুন্দরভাবে চলবে।

শাওমি হাইপারওএস এর ফিচারসমূহ

মূলত মিইউআই এর রিফাইনড ভার্সন বলা চলে হাইপারওএস‘কে। পুরোপুরি ঢেলে সাজিয়েছে শাওমি তাদের অপারেটিং সিস্টেমকে। পূর্বের ফিচার, এআই ফিচার, কানেকটিভিটি ও সিকিউরিটি, ইত্যাদি বিষয়ে ব্যাপক উন্নতি আসবে হাইপারওএস এ। 

ফাস্টার অ্যাপ লোডিং টাইম, বেটার ব্যাকগ্রাউন্ড মেমোরি রিটেনশন, রিডিউসড ডিস্ক লেটেন্সি, স্মুথ এনিমেশন, ইত্যাদি ফিচার থাকছে নতুন এই ওএস এ। এর পাশাপাশি এআই জেনারেটেড টেক্সট, ফটো থেকে টেক্সট ক্যাপচার, ডুডল থেকে পেইন্টিং, ন্যাচারাল ল্যাংগুয়েজ ইমেজ সার্চ, ইত্যাদি এআই-ব্যবহৃত ফিচারেরও দেখা মিলবে হাইপারওএস এ।

শাওমি হাইপারকানেক্ট ও হাইপারমাইন্ড এর সাথে স্মার্ট কানেকটিভিটি সুবিধা প্রদান করবে হাইপারওএস যার মাধ্যমে ফোনের রিয়্যার ক্যামেরাকে ওয়েবক্যাম হিসেবে ব্যবহার করা যাবে, সিমলেস ডাটা শেয়ারিং করা যাবে ও লার্জার-স্ক্রিন ডিভাইসে ফোনের নোটিফিকেশন পাওয়া যাবে। 

থার্ড-পার্টি ডেভলপার এর জন্য হাইপারকানেক্টকে উন্মুক্ত করার মাধ্যমে সিকিউরিটিতে ফোকাস করে নতুন এই ওএস যা এনক্রিপশন, পারমিশন ম্যানেজমেন্ট ও সিকিউরিটি প্রটোকলে গুরুত্ব প্রদান করে। লক স্ক্রিন কাস্টমাইজ করার পাশাপাশি ব্যবহারকারীগণ কন্ট্রোল সেন্টার ও স্টক অ্যাপস এডজাস্টমেন্ট এর মত মজার ফিচারও পেয়ে যাবেন।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

xiaomi hyperos

সাপোর্টেড ডিভাইস

স্মার্টফোন, ট্যাবলেট, স্মার্ট হোম প্রোডাক্ট, এমনকি কারে পর্যন্ত চলবে হাইপারওএস যা একটি ইউনিফাইড অপারেটিং সিস্টেম হতে যাচ্ছে। শাওমি ইকোসিস্টেমের ডিভাইসগুলোর ম্যানেজমেন্টকে নতুন মাত্রা প্রদান করবে হাইপারওএস। ২০২৩ সালের ডিসেম্বর থেকে অফিসিয়ালি হাইপারওএস রোলআউট করার কথা রয়েছে।

শাওমি হাইপারওএস সাপোর্টেড ডিভাইসগুলো হলো:

  • শাওমি ১৪ সিরিজ
  • রেডমি কে৬০ আলট্রা
  • শাওমি ওয়াচ এস৩
  • শাওমি প্যাড ৬ ম্যাক্স ১৪
  • শাওমি টিভি এস প্রো ৬৫
  • শাওমি টিভি এস প্রো ৭৫
  • শাওমি টিভি এস প্রো ৮৫
  • শাওমি সাউন্ড স্পিকার
  • শাওমি স্মার্ট ক্যামেরা ৩ প্রো

আপডেট কবে আসবে? 

শাওমির হাইপারওএস নিয়ে এখনো কাজ চলছে, তবে ইতিমধ্যে চীনে মুক্তি পাওয়া শাওমি ১৪ সিরিজের ফোনগুলোতে হাইপারওএস প্রি-ইন্সটলড রয়েছে। খুব শীঘ্রই উল্লেখিত ডিভাইসগুলোর জন্য হাইপারওএস রোলআউট করবে বলে জানিয়েছে শাওমি।

শাওমির এই নতুন হাইপারওএস সম্পর্কে আপনার মতামত কি? আপনার মতামত বাংলাটেক এর পাঠকদের সাথে শেয়ার করতে পারেন কমেন্ট সেকশনে।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button