TechTricks

Games এর আসক্তি থেকে কিভাবে বের হবেন? 100% working

আসসালামু আলাইকুম।

আশা করি আল্লাহর অশেষ রহমতে সকলে অনেক ভাল আছেন। বর্তমানে গেমসের আসক্তির কথা যদি চিন্তা করা যায় তাহলে এটি মহামারী আকার ধারণ করেছে। আর আজ আমার আলোচনার বিষয় এই গেমস খেলার আসক্তি থেকে কিভাবে নিজেকে বের করবেন তা নিয়ে। তো চলুন বেশি কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

বর্তমানে স্মার্টফোন সবার হাতে হাতে থাকার কারণে বেশিরভাগ সময় মানুষ অনলাইন গেমস গুলো বেশি খেলতে আগ্রহী হয়। বিশেষ করে ১৫ থেকে ২৫ বছর বয়সীরা বেশিরভাগ সময় এই অনলাইন গেমসে আসক্ত হয়ে পড়ে। অথচ খেয়াল করলে দেখা যায় যে এই বয়সেই নিজের ক্যারিয়ার গড়ার সঠিক সময়। অথচ তারা গেম খেলেই এই সময়গুলো নষ্ট করে ফেলে। বর্তমানে মানুষের মাথায় গেমস এমন ভাবে ঢুকে গেছে যে এটি না খেলে তারা এক প্রকারের অসুস্থ হয়ে যায় মাথা কাজ করে না তাদের কিছু ভালো লাগে না ইত্যাদি ইত্যাদি।

 

জীবনে যদি কিছু করতে চান তাহলে অবশ্যই শুধু অনলাইন গেমসের উপর নির্ভর করে থাকলেই চলবে না বাস্তবেও কিছু করতে হবে।

 

চলুন এখন বলি গেমসের আসক্তি থেকে কিভাবে নিজেকে বের করবেন?

গেমসের আসক্তি এমন একটি বিষয় যা আপনি হঠাৎ করে একদম পার্ট দিতে পারবেন না। তাই আপনার শুরুতে গেমস খেলার পরিমাণ কমাতে হবে। অর্থাৎ আপনি যদি দিনে 10 থেকে 12 ঘন্টা গেমস খেলে থাকেন তাহলে তার পরিমাণ প্রতিদিন দুই ঘন্টা করে কমানোর চেষ্টা করুন। এমনও গেমসের প্রতি আসক্ত মানুষ আছে যারা কিনা দিনে ১৪ থেকে ১৬ ঘণ্টা অব্দি অনলাইন গেমস খেলে। এভাবে প্রতিদিন নিজের অনলাইন গেমসের প্রতি আগ্রহ কমাতে পারবেন।

এছাড়া আপনি যা করতে পারেন তা হচ্ছে আপনি আউটডোর গেম গুলো খেলতে পারেন। হঠাৎ মাঠে গিয়ে অন্যদের সাথে খেলাধুলা করতে পারেন। এতে করে আপনার মাইন্ড অনেক ভালো থাকবে তার পাশাপাশি ব্যায়ামও হবে আর আপনার স্বাস্থ্য ভালো থাকবে।

তাছাড়াও আপনি আপনার পরিবারের সদস্যদের সাথে সময় কাটাতে পারেন। আপনার মা হয়তোবা অনেক কাজ করে দিনে তার কাছেও কিছু সাহায্য করতে পারেন। অথবা আপনার বাবার কাছেও সাহায্য করতে পারেন। এতে করে আপনার অনলাইন গেমসের প্রতি একটু হলেও আসক্তি কমবে।

অনলাইন গেমসের উপর আসক্ত না হয়ে আপনি সুন্দর সুন্দর গল্পের বই পড়তে পারেন। লাইব্রেরীতে অনেক সুন্দর সুন্দর গল্পের বই পাওয়া যায় তা পড়তে পারেন। তাছাড়াও ক্যারিয়ার গড়ার জন্য নিজের পড়ালেখার দিকে মন দিন।

 

অনলাইন গেমস ব্যতীত আপনার পছন্দের অন্যান্য কাজ গুলো আপনি প্রতিদিন করতে পারেন। এতে করে দেখা যাচ্ছে যে আপনি অনলাইন গেমস বেশি না খেলে আপনার মাইন্ড বা আপনার চিন্তাভাবনাকে আপনি অন্যদিকে নিয়ে যেতে পারতেছেন।

 

সব কিছুরই একটা লিমিট থাকে লিমিটের বাইরে যেটাই চলে যায় না কেন সেটাই অনেক খারাপ আমাদের জন্য। অনলাইন গেমস বা অনলাইন গেমস এর আসক্তি এতটা যেন না হয়ে যায় যে গেমসে আপনাকে কন্ট্রোল করতেছে। এমন হতে হবে যে গেমসকে আপনি কন্ট্রোল করবেন গেমস আপনাকে না। অর্থাৎ সহজ ভাবে বলতে গেলে আপনি যদি মাঠ না থাকে আপনার এলাকায় খেলাধুলা করার মতো তাহলে আপনি অনলাইন গেমস খেলতে পারেন তবে সেটা ৩০ মিনিট বা বেশি হলে এক ঘন্টা এর বেশি না।

এছাড়াও আরো অসংখ্য উপায় আছে যার মাধ্যমে আপনি গেমসের আসক্তি থেকে বের হয়ে আসতে পারবেন। তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে আপনার ধর্ম। ধর্মকে অনুসরণ করুন মন শান্ত থাকবে। আপনার মনের ভিতর শান্তির আবির্ভাব ঘটবে।

 

নিজের মধ্যে কি গুন আছে তা জানা সহজ উপায় হচ্ছে নিজেকে গেমসের দুনিয়া থেকে বের করে নিয়ে আসা। এবং নিজের পছন্দের কাজগুলো করতে থাকা। এতে করে আপনার দ্বারা কি সব থেকে ভালোভাবে করা সম্ভব সেই গুনটি আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন। জীবনে ভালো কিছু করতে হলে সেটাই আপনাকে অনেক সাহায্য করবে।

 

আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করছি সকলে ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন নিজের যত্ন নিবেন ধন্যবাদ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button