TechTricks

লাইফটাইমের জন্য আনলিমিটেড ক্লাউড স্টোরেজ একদম ফ্রীতে!

ক্লাউড স্টোরেজ কি?

ক্লাউড স্টোরেজ হলো এমন একটা স্টোরেজ যেটার এক্সেস আপনি ইন্টারনেটের মাধ্যমে পাবেন এবং সেখানে আপনার ইচ্ছেমতো যা খুশি স্টোর করতে পারবেন। উদাহরণ দিতে গেলে প্রথমে Google Drive এর নামটাই মাথায় আসবে। আসা করি বুঝে গিয়েছেন ক্লাউড স্টোরেজ আসলে কি!

ক্লাউড স্টোরেজের সুবিধাগুলো কি?

ক্লাউড স্টোরেজের সুবিধা হলো আপনার যেকোনো ফাইল ক্লাউড স্টোরেজে সংরক্ষিত থাকবে। আপনার ডিভাইস হারিয়ে গেলে কিংবা এসডি কার্ড নষ্ট হয়ে গেলেও আপনার ক্লাউড স্টোরেজে থাকা ফাইলের কোনো ক্ষতি হবে না। তাছাড়া আপনি চাইলে ক্লাউড স্টোরেজে থাকা ফাইল লিংক আকারে অন্য কারো সাথে শেয়ারও করতে পারবেন। যাকে শেয়ার করবেন সে পৃথিবীর যেকোনো প্রান্ত থেকে সেই ফাইল এক্সেস করতে পারবে।

আনলিমিটেড ক্লাউড স্টোরেজ কিভাবে নিবেন? (Unlim Cloud App)

অনেক কিছুই তো জানা হলো, চলুন তাহলে এখন জেনে নেয়া যাক কিভাবে আপনি আনলিমিটেড ক্লাউড স্টোরেজ পেতে পারেন। আপনারা হয়তো সবাই Telegram এর নাম শুনেছেন! টেলিগ্রাম হোয়াটসঅ্যাপ বা ম্যাসেঞ্জারের মতোই একটা ম্যাসেজিং অ্যাপ। তবে টেলিগ্রাম তাদের ইউজারদের আনলিমিটেড স্টোরেজ প্রোভাইড করে থাকে। আপনি যতো খুশি ততো ফাইল টেলিগ্রামে রাখতে পারবেন। এতে কোনো লিমিটেশন্স নাই।

যদিও আমরা টেলিগ্রামের সার্ভার ব্যবহার করে আমাদের ফাইল ব্যাকআপ রাখবো বাট এই কাজের জন্য আমরা Telegram এর বদলে থার্ড পার্টি একটা অ্যাপ ইউজ করবো যার নাম হলো Unlim

আনলিম অ্যাপটি কোথা থেকে বা কিভাবে ডাউনলোড করবেন তা পরে দেখবো, আগে চলুন দেখে আসি এটা কিভাবে ইউজ করতে হয়।

প্রথমেই অ্যাপটি ওপেন করলে আপনাকে কিছু ইনফরমেশন দেখানো হবে, সেগুলো স্কিপ করবেন। তারপর এইরকম একটি পেইজে আপনাকে নিয়ে যাবে।

 

এখানে কান্ট্রি কোড সহ আপনার টেলিগ্রাম একাউন্টের নাম্বার দিন। আর হ্যা, যদি আগে থেকে একাউন্ট না থাকে তাহলে প্লে স্টোর থেকে আগে টেলিগ্রাম ডাউনলোড করে একাউন্ট করে নিবেন।

আচ্ছা, এরপর যখন আপনি নাম্বার বসিয়ে নেক্সট স্টেপে যাবেন তখন আপনার টেলিগ্রাম অ্যাপে একটা ওটিপি যাবে।

ওটিপি দিয়ে ভেরিফাই করলেই আপনাকে Unlim এর মেইন ইন্টারফেসে নিয়ে যাবে।

এখন নিচের দিকে খেয়াল করলে দেখবেন একটা Unload নামে বাটন শো করছে। ওইখানে ক্লিক করে আপনি আপনার ফোনে থাকা যেকোনো ফাইল যতোখুশি ততো এখানে আপলোড করতে পারবেন, কোনো লিমিট নেই। এখানে আপনি যাই আপলোড করবেন তা সব Telegram এর Saved Message সেকশনে আপলোড হবে এবং সেখানেই ফাইলগুলো সেভ হয়ে থাকবে।

Unlim কেন ব্যবহার করবো এবং এর সুবিধাগুলো কি?

আনলিম এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো এইটার স্পিড। আপনি নরমালি টেলিগ্রামে যদি কোনো ফাইল আপলোড কিংবা ডাউনলোড করেন তাহলে যেমন স্পিড পাবেন তারপেয়ে কয়েকগুণ বেশি স্পিড আপনি এই অ্যাপে পাবেন। আর তাছাড়া অ্যাপের ইন্টারফেসটা একদম সিম্পল যার কারনে এটা অনেক ইউজার ফ্রেন্ডলি। যার জন্য সবাই এটা সহজেই ব্যবহার করতে পারবে।

Unlim ব্যবহার করলে একাউন্টের কোনো ক্ষতি হবে না তো?

না, এরকম কোনো রিপোর্ট এখনো পাওয়া যায়নি। এটা সম্পুর্ন সেইফ একটা ম্যাথড। তারপরও সতর্ক থাকতে চাইলে আপনি মেইন একাউন্ট ব্যবহার না করে একটা নতুন একাউন্ট ক্রিয়েট করে সেটা Unlim এ ইউজ করবেন।

Unlim কিভাবে ডাউনলোড করবেন?

Unlim অ্যাপটি আপনি প্লে স্টোর কিংবা গুগলে সার্চ করলেই পেয়ে যাবেন। তবে আপনাদের সবার সুবিধার জন্য আমি অ্যাপের লিংকটি নিচে দিয়ে দিচ্ছি।

Download Unlim

আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেল লিংক

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button